রাজশাহী সারাদেশে

পাবনায় বুদেরহাটে কাউন্সিলরের বাড়িতে হামলা লুটপাট ও ভাংচুরের অভিযোগ; দুইজন আটক

নিজস্ব প্রতিনিধি : পূর্বশত্রুতা এবং আঞ্চলিক আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে পাবনা পৌর এলাকার ১৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের বাড়িতে হামলা ভাংচুরসহ লুটপাট চালিয়ে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা। বুধবার (১৪ এপ্রিল) রাতে পাবনা হেমায়েতপুর বুদেরহাট এলাকার পশ্চিম পাড়ায় ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহিন শেখের বাড়িসহ তার সর্থকদের বাড়িতে এই হামলার ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় গতকাল রাতে পুলিশ প্রশাসন ঘটনা স্থল পরিদর্শন করে মহিদুল ও শায়েম নামে দুইজনকে আটক করেছে বলে জানা গেছে। ঘটনার পরে অত্র এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে রয়েছে বলে জানিয়েছেন। এলাকায় অতিরিক্তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা জানান, পৌর সভার নির্বাচনে কেন্দ্রিক ঝামেলার সুত্রপাত তৈরি হয়। এই নির্বাচনে শাহিন শেখ বিজয়ী হয়ে প্রতিপক্ষের অপকর্মের সাথে সমর্থ না দেয়ার কারণে তার উপর ক্ষিপ্ত হয় প্রতিপক্ষ। এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ী আজাদ, শফি, সুমন, সায়েম শেখ, হিরক শেখের গঙ্গেরা একত্রিত হয়ে এলাকায় মাদক ব্যবসাসহ সকল ধরনরে অপকর্মের সাথে সম্পৃক্ত বলে জানান তারা।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে আরো জানাযায়, গত ৩০ মার্চ এই সন্ত্রাসীরা ওয়ার্ড কাউন্সিলরে’র ছোট ভাই জেলা ছাত্রলীগের পাঠাগার সম্পাদক শাকিল শেখসহ কাউন্সিলরের উপর উপর হামলা চালায়। এ সময় শহিনের ছোট ভাই শাকিলকে সন্ত্রাসীরা ধারালো অস্ত্রদিয়ে আঘাত করে গুরুত্বর আহত করে। এই ঘটনায় শাকিল শেখ দীর্ঘদিন রাজশাহী ও ঢাকায় চিকিৎসা শেষে গতকাল বাড়িতে আসেন। পাবনা সদর থানায় উভয় পক্ষ দুটি অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনার প্রাথমিক তদন্ত শেষে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন দুটি অভিযোগ নথিভুক্ত করেন।
কিন্তু সেই হামলা মামলা ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই সন্ত্রাসীরা আবারো পরিকল্পিত ভাবে ১৪ এপ্রিল রাত ১১ টার দিকে ১৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহিন শেখের বসত বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় তারা ধারালো অস্ত্রদিয়ে শাহিন শেখের বসত ঘরের টিনের বেড়া গেট ও ঘরের মধ্যে ব্যাপক ভাংচুর চালায়। হামলাকারী সন্ত্রাসীরা প্রতিবেশি শাহিন শেখের সমর্থকের বাড়িতেও হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে তাদেরকেও মারপিট করে। হামলাকারীরা কাউন্সিলর শাহিন শেখকে না পেয়ে তার পরিবারের সদস্যদের উপর নির্যাতন চালায় এবং শাহিনকে হত্যার হুমকী দেয়, বাড়িতে লুটপাট চালায় বলে অভিযোগ করেন পরিবারে সদস্যরা। পুলিশ আসার খবরে পেয়ে দ্রুত পালিয়ে যায় হামলাকারীরা। হামলার ঘটনায় ওয়ার্ড কাউন্সিসলর ও তার পরিবারের সদস্যরা চরম নিরাপত্তা হীনতার মধ্যে রয়েছে বলে জানিয়েছেন। এই ঘটনায় মামলা পক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

ঘটনার বিষয়ে কাউন্সিলর শাহিন শেখ বলেন, একেরপর এক আমার উপরে হামলা হচ্ছে, আমি খুব বিপদের মধ্যে আছি। সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে আমাকে হত্যার হুমকী দিচ্ছে। দুই সপ্তাহ আগে আমার ছোট ভাইকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে গুরুত্ব আহত করে। আবার গত রাতে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে আমার বাড়ির উপরে হামলা চালায়। ধারালো অস্ত্র দিয়ে আমার বাড়ি ঘরে হামলা করে ব্যাপক ভাংচুর চালায়। আমি ও আমার পরিবারের সদস্যরা চরম আতঙ্কের মধ্যে রয়েছি। মাদকসহ তাদের খারাপ কাজের সমর্থন না দেয়ার কারণে সন্ত্রাসী আমার উপরে ক্ষিপ্ত হয়েছে। আমি ও আমার পরিবারের সদস্যদের জানের নিরাপত্তার জন্য প্রশাসনের কাছে সহযোগিতা চাই।

পাবনার অতিরিক্তি পুলিশ সুপার মো. রোকনুজ্জামান সরকার (সদর সার্কেল) ঘটনার বিষেয় বলেন, আঞ্চলিক আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ঝামেলার সূত্রপাত। পাবনা পৈর নির্বাচনের আগে এই দুই গ্রুপের মধ্যে বেশ ভালো মিল ছিলো। নির্বাচনের পরে ১৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহিন শেখের সাথে আধিপত্য নিয়ে তাদের দূরত্ব তৈরি হয়। এলাকায় মাদক, বালু ব্যবসা, ক্লিনিক ও হাট বাজারের দখল নিয়ে ঝামেলার সূত্রপাত হয়েছে। গত বুধবার (১৪ এপ্রিল) রাতে শাহিন কাউন্সিলরের প্রতিপক্ষ গ্রুপের সন্ত্রাসীরা তার বাড়িতে হামলা চালায়। ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত পুলিশ সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। এই ঘটনায় মামলা পক্রিয়াধীন রয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের সকলকে আইনের আওতায় আনা হবে। ঘটনার সাথে জড়িত দুইজনকে ইতমধ্যে আটক করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *